আওয়ামীলীগ সরকার যার একই অঙ্গে এত রূপ! আকরামুল হক হত্যা অতপর ইয়াবা সম্রাট বদিকে রাজকীয় অতিথি হিসাবে সৌদি প্রেরন, দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের প্রথম সেনাপতি বিরিয়ানি ইমরান এইচ সরকার গ্রেফতার, কোরআনে হাফেজকে নিয়ে ইয়াবা নাটক।

(আকরামুল হককে হত্যার সময়ের ফোনে কথোপকথন)

খালেদা জিয়ার হাজতবাস ও সরকার বিরোধী আন্দোলন চাপা দিতে মাদক বিরোধী অভিযানের নামে আকরামুল হক সহ অগনিত নিরীহ মানুষকে হত্যা, সরকার দলীয় সাংসদ ইয়াবা সম্রাট বদিকে আড়াল করতে সৌদিতে রাজকীয় অতিথি হিসাবে প্রেরন। সরকারের ছএছায় বেড়ে ওঠা “শাহাবাগ” মঞ্চের খলনায়ক নাস্তিক কতিথ দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের প্রথম সেনাপতি বিরিয়ানি ইমরান এইচ সরকার গ্রেফতার, অতপরঃ পবিএ রমজান মাসে আগাম ঢোল পিটিয়ে ইয়াবা উদ্ধারের নাটক শুটিং, সিনেমা স্ট্যাইলে টিভি ক্যামেরা বসিয়ে কোরআনে হাফেজ, দেওবন্দ মাদরাসা ফারাক ওলামাকে ইয়াবা সম্রাট ও দেশের মসজিদ, মাদরাসা সমূহকে ইয়াবা ব্যাবসার নিরাপদ জায়গা বলে খোদ সরকারের তরফ থেকে মিডিয়ায় উপস্থাপন ইত্যাদি কিসের আলামত?

(ছবিঃ নিহত আকরামুল, পরিবারসহ আকরামুল)

আওয়ামীলীগ সরকারের সাংসদ ইয়াবা সম্রাট বদির সাপোটে খোদ সরকারের সাধারন সম্পাদক ও হোম মিনিস্টার। প্রকাশ্যে উনারা বদির সাপোটে বয়ান করেই চলেছেন এবং নিরাপদে বদিকে আড়াল করতে সৌদি রাজ পরিবারের অতিথি হিসাবে সৌদি প্রেরন করেছেন।

(ইয়াবা বদি সৌদি রাজকীয় অতিথি)

বদির বিষয়ে তালাশ টিমের প্রতিবেদন।

সরকারী সাপোটে বদি

(বদির বিষয়ে সরকারের ভাবনা)

খলনায়ক গ্রেফতারঃ

অবশেষে গ্রেফতার হলেন সরকারের ছএছায় বেড়ে ওঠা “শাহাবাগ” মঞ্চের খলনায়ক নাস্তিক কতিথ দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের প্রথম সেনাপতি বিরিয়ানি ইমরান এইচ সরকার। তথাকথিত গণজাগরণ মঞ্চের ইমরান এইচ সরকারকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। এই তো সেদিনের কথা। ৫ বছরও হয় নাই। ইমরানের ডাকে জাতীয় সংসদের সদস্যরা রাস্তায় সটান নীরব দাড়াইয়া যাইতেন। তাঁর কথায় সচিবালয়ের সরকারি কর্মকর্তারা রাস্তায় দাড়াইতে হতো নীরবে। তাঁর নির্দেশে সচিবালয় ও স্কুল কলেজে জাতীয় পতাকা উওোলন, অার নামানো হতো । এই র‌্যাবসহ সকল গোয়েন্দা সংস্থার লোকরা ৫ স্থরে নিরাপত্তা দিয়ে পাহারা দিতো ! আজ তাঁকেই না এই শাহবাগ থেকেই র‌্যাব ধইর‌্যা নেয়!! শাহবাগ তুমি এখন এত নিষ্ঠুর কিয়ের লাইগ্যা!! শেরাটন, সোনারগাঁ খাবার হাজির আর গাজির কাচ্ছি বিরিয়ানি অাসতো এই শাহবাগে ইমরানের অাপ্যায়নের জন্য!!!

 

পবিএ রমজানের অবমাননা ঃ

হঠাৎ করে পবিএ রমজান মাসে আগাম ঢোল পিটিয়ে ইয়াবা উদ্ধারের নাটক শুটিং, সিনেমা স্ট্যাইলে টিভি ক্যামেরা বসিয়ে কোরআনে হাফেজ, দেওবন্দ মাদরাসা ফারাক ওলামাকে ইয়াবা সম্রাট ও দেশের মসজিদ, মাদরাসা সমূহকে ইয়াবা ব্যাবসার নিরাপদ জায়গা বলে খোদ সরকারের তরফ থেকে মিডিয়ায় উপস্থাপন কিসের আলামত?

সরকার কি এই রমজান মাসের পবিএতার দিকে খেয়াল রেখে মুসলমান প্রধান এই দেশে কোরআন নাজিলের মাসে একজন কোরআনে হাফেজকে নিয়ে এমন নাটক না করলে পারতেন না? আর সরকারের গোয়েন্দা অফিসার কি ভাবে বললেন মসজিদ, মাদরাসা গুলো মাদক ব্যাবসার নিরাপদ জায়গা? টিভির টকশোতেই বা আমরা কি দেখলাম? আসুন নিচের দুটি ভিডিও দেখি।

 

Advertisements

Leave a Reply